নন্দন পার্ক ভ্রমণের ইতিবৃত্ত

নন্দন পার্ক

নন্দন পার্ক (Nandan Park) দেশের সর্ববৃহৎ এবং একমাত্র পূর্নাঙ্গ পরিবার বিনোদন কেন্দ্র। ২০০৩ সালে যাত্রা লাভ করা এই থিম পার্কটি হয়ে উঠেছে নাগরিক জীবনের ক্লান্তি মোচন ও চিত্তবিনোদনের তীর্থস্থান। নন্দন পার্ক (Nandan Park) দেশের সর্ববৃহৎ এবং একমাত্র পূর্নাঙ্গ পরিবার বিনোদন কেন্দ্র। সর্বাধুনিক প্রযুক্তির অবকাঠামো আর নান্দনিক শৈলীতে নির্মিত আন্তর্জাতিক মানের এই পার্কটি  ছোট-বড় সব বয়সী মানুষের মন কেড়ে নেয়।

জানেন কি? ভ্রমণচারীর ফেসবুক গ্রুপে ভ্রমণ সম্পর্কিত সমসাময়িক যেকোনো প্রশ্ন করে তাৎক্ষনিক উত্তর পাওয়া যায়। যুক্ত হতে এখানে ক্লিক করুন

ব্যস্তময় আর কোলাহলে পুর্ন শহুরে জীবনে পার্কটির সুবিশাল সবুজের চত্বর যেন পর্যটককে প্রশান্তির পরম চাদরে ঢেকে দেয়। বলাই বাহুল্য, বিনোদন-প্রেমীদের গন্তব্যের তালিকায় প্রথম সারিতে রয়েছে পার্কটির অবস্থান।

নন্দন পার্ক কোথায় অবস্থিত?

রাজধানীর অদূরে নবীনগর-চন্দ্রা হাইওয়ের পাশে বড়ইপাড়া নামক স্থানে পার্কটির অবস্থান। প্রায় ১৩৪ বিঘা (৩৩ একর) জমির উপর পার্কটি প্রতিষ্ঠিত।

নন্দন পার্কের শুরুর গল্পটা

প্রবাসী ও দেশী  ১০ জন তরুন উদ্যোক্তা ১৯৯৯ সালে নন্দন পার্ক তৈরির উদ্যোগ গ্রহন করে। যুক্তরাজ্যের আধুনিক কারিগরি জ্ঞান ও প্রযুক্তির সহায়তা নিয়ে পার্কটি তৈরির পরিকলনা গ্রহন করে তারা। তবে এক্ষেত্রে প্রয়োজন ছিল মোটা অংকের বিনিয়োগের। তবে এটি কোনো সমস্যা হিসাবেই যেন টিকেনি। ভারতের বৃহত্তম পার্ক পরিচালনাকারী প্রতিষ্ঠান ‘নিকো পার্কস এন্ড রিসোর্ট’ নন্দন পার্ক প্রকল্পে যৌথ বিনিয়োগের প্রস্তাব দেয় যা উদ্যোক্তাদের স্বপ্নের আধুনিক পরিবার বিনোদন কেন্দ্র প্রতিষ্ঠায় আরও একধাপ এগিয়ে নিয়ে যায়।

সব আনুষ্ঠানিকতা শেষে ‘নন্দন পার্ক লিমিটেড’ ব্যাবসায়িক নামে ২০০৩ সালের অক্টোবর মাসে পার্কটি যাত্রা শুরু করে।

নন্দন পার্কে যা কিছু দেখার ও উপভোগ করার আছে

Nandan Park
নন্দন পার্কের প্রবেশ গেট

সর্বাধুনিক প্রযুক্তিতে তৈরি নান্দনিক ডিজাইনের দৃষ্টিনন্দন এই পার্কটিতে রয়েছে আন্তর্জাতিক মানের সব রকমের সুযোগ সুবিধা। পার্কটির ৩৩ একরের বিস্তর এলাকা জুড়ে রয়েছে আধুনিক বিভিন্ন রাইড, দেশের প্রথম ফাইভ-ডি সিনেমা থিয়েটার, ওয়াটার ওয়ার্ল্ড ও রোমাঞ্চকর সব ওয়াটার রাইড, গ্রামীন আবহে তৈরি নন্দন ভিলেজ রিসোর্ট ও রেস্টুরেন্ট ১৫০০ গাড়ি ধারনক্ষম সুপরিসর কার পার্কিং সুবিধা।

আসুন বিস্তারিত ভাবে জেনে নেয়া যাক নন্দন পার্ক আপনাদের জন্য কি কি অফার নিয়ে অপেক্ষা করছে।

নন্দন পার্কের আকর্ষণীয় সব রাইডসমূহ

নন্দন পার্কে রয়েছে নিরাপদ ও বিশ্বমানের ২৮ টি রাইড। তন্মধ্যে  জিপ রাইড, রক ক্লাইম্বিং, র‍্যাপলিং চ্যালেঞ্জ কোর্স, রোলার কোস্টার, অবস্ট্যাকল কোর্স, ওয়াটার রোস্টার, ক্যাবল কার, ওয়েভ পুল, স্যুট ও ফ্যামিলি কার্ভ টিউব স্লাইড, ওয়েভ রানার, ডুম স্লাইড, মাল্টি প্লে জোন ও ওয়াটার ফল এন্ মিস্ট সবচেয়ে রোমাঞ্চকর।

ড্রাই পার্ক অংশের রাইড ও ওয়াটার ওয়ার্ল্ডের রাইডগুলো থেকে আমি কয়েকটি রাইড সম্পর্কে আপনাকে বলে দিচ্ছি যাতে করে আপনার রাইডগুলো সম্পর্কে আন্দাজ করতে সুবিধা হয়।

  • জিপ রাইড

জিপ রাইডে ৪৫ ফিট উচ্চতা সম্পন্ন টাওয়ার থেকে নিচ (ভূমি) পর্যন্ত ১৫ মি.মি এর স্টিল ওয়্যারে ঝুলে  স্লাইড করে নামতে হয়। এ রাইডটি চরম উত্তেপূর্ন।

  • রক ক্লাইম্বিং

নামই তার  পরিচয় বলে দেয়। পাথর বেয়ে পর্বতারোহন। ইংলিশ সেল্প হেল্প বই সমূহে হয়ত রক ক্লাইম্বিংয়ের নাম শুনে থাকতে পারেন। রক ক্লাইম্বিং আমেরিকানদের একটা শখ। যাহোক নন্দন পার্ক থেকেও রক ক্লাইম্বিং এর স্বাদ নিতে পারবেন।

পাথর বেয়ে পর্বতারোহন বা রক ক্লাইম্বিং এক দুঃসাহসিক কাজ। পর্বতারোহীরা এ বিষয়ে গুরুতর প্রশিক্ষন নেয়।

তাই বলে নন্দন পার্কে রক ক্লাইম্বিং করতে আপনারকেও  প্রশিক্ষন নিতে হবে? মোটেও না।

৪৫ ফিট উচ্চতার খাড়া দেয়ালে কৃত্তিমভাবে স্থাপন করা পাথর বেয়ে উপরে উঠতে গেলে যাতে আপনি পড়ে না যান সেজন্য দেয়া হবে বিশেষ নিরাপত্তা সরঞ্জাম।

  • র‍্যাপলিং

র‍্যাপলিং আরও দুঃসাহসিক। পর্বতারোহীরা পাহাড় বেয়ে উপরে ওঠা বা নামার সময় যখন হাত দিয়ে আকড়ে ধরার মত কোনো খাঁজ পায়না তখন তারা কি করে জানেন? সর্বশেষ যে স্থানে খাঁজ ছিল তার সাথে দড়ি বেধে,; অতঃপর সেই দড়িতে ঝুলে পরবর্তি যে স্থানে হাত দিয়ে আকড়ে ধরার মত কিছু রয়েছে সেখান অবতোরন বা অবরোহন করে।

নন্দন পার্কে খাঁজবিহীন খাড়া দেয়ালে নির্দিষ্ট স্থানে স্থাপিত পাথুরে খাঁজে দড়ি বাধিয়ে তারপর ঝুলে উপরে উঠতে হবে দুঃসাহসিক এই র‍্যাপলিং রাইডে।

  • চ্যালেঞ্জ কোর্স

এ্যাডভেঞ্চার জোনের এই রাইডটি বার্মা ব্রিজ, প্লাংক পেন্ডুলাম, প্যারালাল রোপ ও হর্স পেন্ডুলামের সমন্বয়ে গঠিত। প্রতিটি রাইডের উচ্চতা ১৮ ফুট এবং দৈর্ঘ্য ২৪ ফুট। এটিও অত্যন্ত রোমাঞ্চকর।

  • ওয়েভ পুল

ওয়েভ পুল নামের এই রাইডে সমূদ্রের মত কৃত্তিম ঢেউ তৈরি করা হয়। যারা কখনও সমূদ্রে সৈকতে যাননি বা গিয়েও ভয়ে সমুদ্রের জলে নামতে পারেননি, তাদের জন্য ওয়েভ পুল একটি আদর্শ রাইড।

ভ্রমণচারী টিপসঃ বাচ্চাদের ওয়েবপুল রাইড থেকে দূরে রাখাই নিরাপদ। সমূদ্রের আদলে কৃত্তিম ঢেউ সৃষ্টির ব্যাবস্থা রয়েছে এই রাইডে।

  • স্যুট ও ফ্যামিলি কার্ভ টিউব স্লাইড
নন্দন পার্ক ঢাকা
কার্ভ টিউব স্লাইড

তিন তলা সমান উচ্চতা থেকে টিউবের ভেতর দিয়ে রাবারের ভেলায় চেপে সোজা পানিতে নামা। কখনও এমন রাইডে চড়ার অভিজ্ঞতা হয়েছে? না হলে, একবার ভাবুন তো কেমন লাগবে!

এই রাইডটা যে কী মজার তা আপনি যতক্ষন না চড়বেন বুঝবেননা!

ফাইভডি সিনেমা থিয়েটার

২০১৭ সালে নন্দন পার্কে দেশের সর্বপ্রথম ও একমাত্র ফাইভ ডাইমেনশনাল মুভি থিয়েটার চালু হয়। একই সাথে সর্বশেষ প্রযুক্তির ৩৬০ ডিগ্রি ভার্চুয়াল সিনেমা থিয়েটারও আছে এখানে।

তবে চিত্রপ্রেমিদের প্রধান আকর্ষণ হলো এখানের পঞ্চমাত্রিক চলচিত্র কেন্দ্রটি। ৫-ডি থিয়েটারে মুভি দেখতে কেমন লাগবে তা আপনাকে একটু বলে দেই।

ভার্চুয়াল রিয়েলিটির নাম শুনেছেন কখনও? যার শাব্দিক অর্থ অনুভবে বাস্তবতা। ৫-ডি সিনেমা থিয়েটারে মুভি ভার্চুয়াল রিয়েলিটির মতো লাগবে। অর্থাৎ সিনেমার দৃশ্যগুলোকে বাস্তবে অনুভব করতে পারবেন। দৃশ্য়গুলোকে মনে হবে যেন বাস্তবে নিজের চোখে দেখছেন।

অবাক লাগছে না? লাগারই কথা! তাহলে নন্দন পার্ক থেকে ৫-ডি মুভি দেখে আসুন, তারপর কমেন্টে এসে জানাবেন কেমন লাগল।

জানেন কি? ভ্রমণচারীর ফেসবুক গ্রুপে ভ্রমণ সম্পর্কিত সমসাময়িক যেকোনো প্রশ্ন করে তাৎক্ষনিক উত্তর পাওয়া যায়। যুক্ত হতে এখানে ক্লিক করুন

নন্দন ভিলেজ

পার্কটিতে নন্দন ভিলেজ নামে একটি রিসোর্ট রয়েছে। গ্রামীন প্রাকৃতিক পরিবেশে তৈরি নন্দন ভিলেজের আধুনিক কটেজগুলি অত্যন্ত চমৎকার। গ্রামীন পরিবেশে আধুনিক সুবিধা সম্বলিত কটেজগুলি সত্যিই যেন কর্মব্যাস্ত জীবনে মৌলিকতার ছেদ আনয়নের উদ্দ্যেশ্যেই তৈরি। নন্দন ভিলেজের প্রতিটা কটেজের সামনে রয়েছে গাড়ী পার্কিং ব্যাবস্থা এবং সামনে ছবির মতো সাজানো সুন্দর বাগান।

এখন আসুন আপনাকে নন্দন ভিলেজের কটেজগুলির ভাড়া সম্পর্কে বিস্তারিত বলে দেই।

ধরনসুবিধাপ্রতি রাতের কাটাতে মূল্য
সিঙ্গেল বেড ভিলেজ রুম২ জন মানুষের জন্য সকালের নাস্তা, খবরের কাগজ, ওয়াইফাই, টিভি, গাড়ি পার্কিং, জুস বার, পার্কের সব রাইড, পানি৫,৫২০ টাকা
ডাবল বেড ভিলেজ রুম২ জন মানুষের জন্য সকালের নাস্তা, খবরের কাগজ, ওয়াইফাই, টিভি, গাড়ি পার্কিং, জুস বার, পার্কের সব রাইড, পানি (২ জন মানুষের জন্য)  ৫,৫২০ টাকা
ইকো ফ্যামিলি২-কাপল বেড, ডাইনিং রুম ও সাথে এটাস্ট বাথরুম।  ৪ জনের মানুষের টিকেট ও সকালের নাস্তা আর পার্কের সব রাইড৮০০০ টাকা
ইকো ব্যাকপ্যাকারশুধু পার্কে প্রবেশ টিকিট + রুম৩,২২০ টাকা
নন্দন ভিলেজ প্যাকেজ

চেকইনের সময় অবশ্যই বয়স্কদের পাসপোর্ট বা জাতীয় পরিচয় পত্র ও বৈবাহিক সনদপত্র জমা দিতে হবে।

নন্দন ভিলেজে আপনার পছন্দের প্যাকেজ বুক দিন। (ক্লিক করলে নন্দন পার্কের অফিসিয়াল সাইটের বুকিং পেজে নিয়ে যাবে)

অন্যান্য সুবিধাসমূহ

নন্দন পার্কে কর্পোরেট সেমিনার, পিকনিকসহ যেকোনো অনুষ্ঠান আয়োজনের সু-ব্যাবস্থা রয়েছে। পার্কটি একদম নির্ঝঞ্ঝাট হকারমুক্ত, সাথে বেশ ভাল নিরাপত্তা ব্যাবস্থা রয়েছে। আছে বেশ ভাল মানের রেস্টুরেন্টও। পার্কটিতে বিশেষ দিন যেমন বিজয় দিবস, স্বাধীনতা দিবস, পয়লা বৈশাখ, ঈদ, পূজা ও বিভিন্ন উপলক্ষে কনসার্টের আয়োজন করা হয়ে থাকে।

নন্দন ভিলেজ রিসোর্টে কিছু বিচ্ছিন্ন ঘটনার জন্য পার্কের সুনাম নষ্ট হলেও সাম্প্রতিক সময়ে কর্তৃপক্ষের কড়া পদক্ষেপে তা দূর হয়েছে।

নন্দন পার্কে প্রবেশ টিকিট মূল্য ও প্যাকেজ সমূহ

নন্দন পার্কে প্রবেশে বিভিন্ন প্যাকেজ রয়েছে। আবার কেউ চাইলে প্যাকেজ গুলি না নিয়ে শুধু প্রবেশ মূল্য দিয়েও পার্কে ঢুকতে পারবে এবং ইচ্ছামত যে রাইড ভালো লাগবে, সেই রাইডের পাশেই অবস্থিত কাউন্টার থেকে টিকিট নিয়ে চড়তে পারবে।

ভ্রমণচারী টিপসঃ তবে আমার মতে, প্যাকেজ নিয়ে প্রবেশ করা হবে উত্তম ও বুদ্ধিমানের কাজ। কেননা এতে বেশ অর্থ সাশ্রয় হবে কারন শুধু প্রবেশ ফি দিয়ে প্রবেশের পরে প্রতিটা রাইডের টিকিট আলাদা করে কেনা বেশ খরচার।

আমি প্যাকেজগুলোর মূল্যসহ তালিকা দিয়ে দিচ্ছি।

প্যাকেজের নামসুবিধামূল্য
এন্টি +দুইটি রাইডপার্কে প্রবেশ সহ দুইটি রাইডে চড়তে পারবেন। রাইডদ্বয় হলোঃ প্যাডেল বোট ও টিল্ট-এ-হুইর্ল২৯৫ টাকা
এন্টি + ড্রাই পার্কের  ১০ টি রাইডপার্কে প্রবেশসহ ড্রাই পার্কের ১০ টি রাইডে চড়তে পারবেন৪৫০ টাকা
এন্ট্রি + ওয়াটার ওয়ার্ল্ডের সব রাইডপার্কে প্রবেশসহ ওয়াটার ওয়ার্ল্ডের সব রাইড৫৫০ টাকা
সুপার স্যাভেজ প্যাকেজ টিকেট এন্ট্রি+ওয়াটার ওয়ার্ল্ড+ ১০ টি রাইড৬৫০ টাকা 
শুধু ড্রাই পার্কের ১০ টি রাইড (প্রবেশের পর)পার্কে শুধু এন্ট্রি টিকিট কেটে প্রবেশের পর ড্রাই পার্কের ১০ টি রাইডে চড়তে পারবেন২৩০ টাকা
পার্কের সব রাইড পার্কের সকল রাইড (এন্ট্রি টিকিট ছাড়া)৭৪৫ টাকা
লাঞ্চ+পার্কের সব রাইড ৯৪৫ টাকা
ফ্যামিলি প্যাকেজপরিবারের ৪ জন দুপুরের লাঞ্চসহ পার্কের সব রাইডে চড়তে পারবেন৩৫৮০ টাকা
নন্দন পার্ক প্যাকেজ (স্বাভাবিক মূল্য)

এছাড়া পার্কে প্রবেশের পর আলাদা আলাদা রাইডের টিকিট কাটতে পারবেন। পুরো পার্কের সব রাইডের আলাদা আলাদা মূল্য তালিকা দেখাতে পাবেন নন্দন পার্কের অফিশিয়াল সাইটে। এছাড়া পার্কে পিকনিক বুক দিতে চাইলে এখান থেকে বুক দিন।

নন্দন পার্ক কিভাবে যাব?

ঢাকা থেকে সাভারগামী প্রায় প্রতিটা বাসই নন্দন পার্ক যায়। বাসগুলির তালিকা দিয়ে দিচ্ছি।

বাসের নামরুট
আল মদিনা প্লাস ওয়ানকমলাপুর-মতিঝিল-শাহবাগ-ফার্মগেট-গাবতলী-নন্দনপার্ক
গ্রামীন শুভেচ্ছাফুলবাড়িয়া-আজিমপুর-সিটি কলেজ-আসাদগেট-গাবতলী-নন্দন পার্ক
ইতিহাস পরিবহনমিরপুর ১৪,২,১-গাবতলী-নন্দন পার্ক
ওয়েলকামমতিঝিল-শাহবাগ-ফার্মগেট-গাবতলী-নন্দন পার্ক
বিআরটিসিমতিঝিল-শাহবাগ-ফার্মগেট-গাবতলী-নন্দন পার্ক
লাল-সবুজ (এসি)মতিঝিল-শাহবাগ-ফার্মগেট-গাবতলী-নন্দন পার্ক
মৌমিতা ট্রান্সপোর্টচাসাড়া-সাইনবোর্ড-মাতুয়াইল-শনির আখড়া-যাত্রাবাড়ি-গুলিস্তান-আজিমপুর-নিউমার্কেট-আসাদগেট-গাবতলী-নন্দন পার্ক
ওয়ান ট্রান্সপোর্টমতিঝিল-শাহবাগ-ফার্মগেট-গাবতলী-নন্দন পার্ক
সাভার পরিবহনসদরঘাট-শাহবাগ-সায়েন্সল্যাব-আসাদগেট-গাবতলী-নন্দন পার্ক
ঠিকানাসাইনবোর্ড-গুলিস্তান-আজিমপুর-আসাদগেট-গাবতলী-নন্দন পার্ক
ঠিকানা এক্সপ্রেসশনবাড়ি-শ্রীনগর-নিমতলা-পোস্তাগোলা-জুরাইন-যাত্রাবাড়ী-গুলিস্তান-চাঙ্খারপুল-আজিমপুর-আসাদগেট-নন্দন পার্ক
নন্দন পার্ক বাস রুট

*দ্রষ্টব্যঃ আপনার স্টপেজ মিলিয়ে নিতে যাতে সুবিধা হয় এজন্য রুটসহ উল্লেখ করার চেষ্টা করেছি। ব্যক্তিগত গাড়িতে যেতে চাইলে শুধু মনে রাখুন নবীনগর-চন্দ্রা হাইওয়ের পাশে বড়ইপাড়ায় পার্কটি।

শেষ কথা

বিনোদন প্রেমিদের স্বর্গোদ্যান তুল্য নন্দন পার্ক সত্যিই নান্দনিক। বিশেষ করে ঢাকা বা আশেপাশে থাকলে এই পার্কটিতে অন্তত একবার ঘুরে আসা বাঞ্চনীয়। কর্মজীবনের ক্লান্তি মোচন করে অবসরের সঙ্গী হয়ে পার্কটি আপনাকে অধিকতর ভালোভাবে নতুন আরম্ভ করতে সাহায্য করবে।

আপনার উদ্দেশ্যে

পুরো লেখা কেমন লাগল? কোনো তথ্য দিয়ে সাহা্যা করতে পেরেছি? অথবা, এমন কোনো তথ্য রয়েছে যা পুরো লেখায় আসেনি? কমেন্ট করে জানান।

আচ্ছা, আরেকটা কথা বলতে ভুলে গেছিলাম, আমাদের একটা ফেসবুক গ্রুপ আছে যেখানে ভ্রমণ সম্পর্কিত নানান রংবেরঙয়ের তথ্য পাওয়া যায়, প্রশ্ন করে উত্তর পাওয়া যায় 🙂। যুক্ত হতে এখানে ক্লিক করুন

ভ্রমণচারীরা বার বার যেসব প্রশ্ন করে থাকে

নন্দন পার্কের খরচ?

নন্দন পার্কের খরচ আহামরি তেমন না। পুরো পার্কের সবগুলো রাইড দুপুরের খাবারসহ ১০০০ টাকার মধ্যে হয়ে যাবে।

নন্দন পার্ক প্রবেশ টিকিট মূল্য?

জনপ্রতি প্রবেশ টিকিট মূল্ল্য ২২০ টাকা (দুইটা রাইড ফ্রি)

নন্দন পার্কের আয়তন কত?

প্রায় ৩৩ বিঘা (১৩৪ একর)

ভ্রমণ, লেখালেখি ও সাংবাদিকতায় আসক্ত। কাচ্চির আলু আর দুধ খেজুরে পিঠার পাগল। আমাকে খুজে পাবেন ফেসবুক, টুইটারে।

Twitter | Facebook

মনের কথা বলুন

ভ্রমণচারীর সাপ্তাহিক নিউজলেটারে সাবস্ক্রাইব করুন

প্রতি সপ্তাহের সেরা গন্তব্যগুলো নিয়ে লেখা সবার আগে চলে যাবে আপনার ইনবক্সে।

অভিনন্দন! আপনি সফলভাবে সাবস্ক্রাইব করে ফেলেছেন।

Pin It on Pinterest

Shares
Share This